কপালে টিপ না পরায় ভারতীয়দের রোষানলে পড়লেন কারিনা

বলিউড অভিনেত্রী কারিনা কাপুর খানের বিরুদ্ধে ভারতীয় সংস্কৃতিকে অপমান করার অভিযোগ উঠেছে। একটি জুয়েলারি প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনে কপালে টিপ না পরায় তার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ। এমনকি ক্ষুব্ধ হয়ে ওই জুয়েলারি প্রতিষ্ঠানকে বয়কটের ডাক দিয়ে হ্যাশট্যাগও পোস্ট করেছেন অনেক নেটিজেন।

সামনেই অক্ষয় তৃতীয়া। তার জন্য তৈরি একটি বিজ্ঞাপনে সেজেগুজে পোজ দিয়েছিলেন কারিনা। অথচ কপালে পরেননি টিপ। এর জন্যই কারিনা কাপুরের বিজ্ঞাপনের বিরুদ্ধে টুইটারে ট্রেন্ডিং ‘Boycott Malabar Gold’ হ্যাশট্যাগ।

বিজ্ঞাপনটিতে কারিনার কানে দুল ও গলায় হার থাকলেও কপালে টিপ ছিল না। এতেই ক্ষিপ্ত নেটিজেনদের একাংশ। একের পর এক টুইট করা হয় ‘Boycott Malabar Gold’ হ্যাশট্যাগ দিয়ে। আবার ‘No_Bini_No_Business’ হ্যাশট্যাগও ট্রেন্ডিং হয়।

কারিনা কাপুরের ছবি শেয়ার করে এক ব্যক্তি টুইট করেছেন, ‘সারা বিশ্ব জানে টিপ পরা আমাদের ঐতিহ্যের অঙ্গ। কপালের ঠিক মাঝখানে পরা হয়, এটাই ভারতের রীতি ও সংস্কৃতি। এটা কি এরা জানে না? নেগেটিভ প্রচারও তো ভাল প্রচার।’

আরেকজন লেখেন, ‘সিঁদুরের টিপ শক্তির আরেক রূপ। কপালে সিঁদুরের টিপ লাগানো হিন্দু ধর্মের সংস্কৃতি, শুদ্ধতা এবং পবিত্রতার প্রতীক। এটি বিবাহিত স্ত্রীর পরিচয়ও বটে।’

ভারতে বিজ্ঞাপন নিয়ে কটাক্ষ নতুন নয়। গত বছর হিন্দু সংস্কৃতির অপমানের অভিযোগে নেটদুনিয়ার একাংশের রোষানলে পড়ে পোশাক প্রস্তুতকারক সংস্থা ফ্যাবইন্ডিয়া। এবার কটাক্ষের মুখে পড়লো কারিনার বিজ্ঞাপন। যদিও এ বিষয়ে এখনও পর্যন্ত জুয়েলারি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি।

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!