শাহরুখকে পুড়িয়ে হত্যার হুমকি

‘বেশরম রং’ গানে গেরুয়া রঙের অপমান করা হয়েছে অভিযোগ করে বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খানকে পুড়িয়ে হত্যার হুমকি দিয়েছেন ভারতের অযোধ্যার এক সাধু।

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় মঙ্গলবার তিনি এ হুমকি দেন।

শাহরুখ-দীপিকা অভিনীত মুক্তি প্রতীক্ষিত সিনেমা পাঠানের প্রথম গান ‘বেশরম রং’ সম্প্রতি প্রকাশ হয়। এর পর থেকেই গানটি নিয়ে শুরু হয়েছে নানা বিতর্ক।

অনেকে গানে স্বল্পবসনা দীপিকাকে নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা করেছেন। এতে গেরুয়া রঙের অপমানের অভিযোগে বিক্ষোভ হয়েছে; পোড়ানো হয়েছে শাহরুখের পোস্টার।

এবার শাহরুখকে হত্যার হুমকি দিয়ে সে বিতর্কে ভিন্ন মাত্রা যোগ করেছেন সাধু।

পরমহংস আচার্য নামের সাধু সিনেমাটি নিষিদ্ধের আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘কোনো হলে সিনেমাটি প্রদর্শন হলে সেটিও পুড়িয়ে দেয়া হবে।’

এ নিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ফ্রি প্রেস জার্নালের প্রতিবেদনে জানানো হয়, মঙ্গলবার সাংবাদিকদের সামনে কথা বলার সময় এ হুমকি দেন তিনি।

পরমহংস আচার্য বলেন, “‘পাঠান’ সিনেমায় আমাদের গেরুয়া রঙের অপমান করা হয়েছে। তা নিয়ে আমাদের সনাতন ধর্মাবলম্বীরা বিরোধ করছেন। আজ আমরা শাহরুখ খানের পোস্টার জ্বালিয়েছি। আমি খুঁজছি যদি কোথাও ফিল্ম-জেহাদি শাহরুখ খানকে পেয়ে যাই, ওকে জ্যান্ত পুড়িয়ে দেব।

“আর অন্য কেউ যদি এই কাজ করে, তার হয়ে আমি লড়ব। আমি চাই এই ধরনের সিনেমা তৈরি অবিলম্বে বন্ধ করা হোক।”

গানে দীপিকা পাডুকোনের গেরুয়া পোশাক ও কিছু দৃশ্য নিয়ে আপত্তি জানিয়েছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ (ভিএইচপি) ও ডানপন্থি একটি সংগঠন।

সিনেমাটি অবিলম্বে পরিবর্তনের দাবি জানিয়েছে দলটি। ভিএইচপি, রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের (আরএসএস) সঙ্গে সম্পর্কিত একটি সংগঠন।

দীপিকার পোশাকের রং নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে সংগঠনটি আপত্তি জানিয়ে বলেছে, হিন্দু সমাজ কখনোই এ ধরনের সিনেমা মেনে নেবে না।

শাহরুখকে পুড়িয়ে হত্যার হুমকি
‘পাঠান’ সিনেমার ‘বেশরম রং’ গানের দৃশ্যে শাহরুখ-দীপিকা। ছবি: সংগৃহীত

 

বেশরম রঙে দীপিকার গেরুয়া রঙের বিকিনি নিয়ে মুম্বাই পুলিশ লিখিত অভিযোগ পেয়েছে। সোমবার এক কর্মকর্তা এ তথ্য জানিয়েছেন।

সাকিনাকা থানার এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, জনগণের ধর্মীয় অনুভূতি এবং হিন্দু ধর্মকে আঘাত করার জন্য ইচ্ছাকৃতভাবে গেরুয়া রং ব্যবহার করায় সিনেমাটির প্রযোজক, পরিচালক এবং প্রধান অভিনেতা-অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে শনিবার অভিযোগ করা হয়েছে।

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!