বিদায়ের আগে সান্ত্বনার জয়

বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল খেলা হচ্ছে না, আগের দিনই জানা হয়ে গিয়েছিল ভারতের। সোমবার রাতের ম্যাচটা তাই ছিল নেহায়েতই নিয়ম রক্ষার। সে ম্যাচে নামিবিয়াকে একপ্রকার উড়িয়েই দিয়েছে ভারত। তাতে টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্বের শেষটা জয় দিয়েই হলো বিরাট কোহলির।

রোববার বিকেলের ম্যাচে নিউজিল্যান্ড আফগানিস্তানকে হারাতেই বিদায়ঘণ্টা বেজে গিয়েছিল ভারতের। তাতে নামিবিয়া ম্যাচের আগের অনুশীলন সেশনটাও বাতিল করে দেয় দলটি। যদিও টসের সময় ভারত অধিনায়ক জানান, মাথা উঁচু করেই শেষ করতে চায় তার দল।

টসভাগ্য পুরো বিশ্বকাপেই ভুগিয়েছে ভারতকে, এদিন আর ভোগাল না। টস জিতে নামিবিয়াকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় ভারত। নামিবিয়া অবশ্য দুই ওপেনারের কল্যাণে শুরুটা ভালোই করেছিল। তবে পরে আর খেই ধরে রাখতে পারেননি বাকি ব্যাটাররা। রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও রবীন্দ্র জাদেজার স্পিন জাদুতেই মূলত শেষ হয়ে যায় নামিবদের লড়াই। ২০ ওভার শেষে ৮ উইকেট হারিয়ে কেবল তুলতে পারে ১৩২ রান। ভারতের স্পিন-জুটি অশ্বিন ও জাদেজার ঝুলিতে জমা পড়ে ৩টি করে উইকেট।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে কিছুটা নড়বড়েই ছিলেন রোহিত শর্মা। তবে থিতু হয়েই প্রতিপক্ষের ওপর রীতিমতো স্টিম রোলার চালান তিনি। সঙ্গ দিয়েছেন লোকেশ রাহুলও। ৩১ বলে অর্ধশতরান করেন রোহিত। তবে ব্যক্তিগত ৫৬ রান করে বড় শট খেলতে গিয়ে উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে আসেন তিনি৷

রোহিতের বিদায়ের পর কোহলি আসেননি আজ। পাঠালেন সূর্যকুমার যাদবকে। রাহুলের সঙ্গে মিলে তিনি আর কোনো সমস্যাই হতে দেননি দলের৷ নিজে ২৫ আর রাহুল ৫৪ রানে অপরাজিত থাকেন, ১৬তম ওভারেই দল জয় তুলে নেয় ৯ উইকেটের ব্যবধানে।

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!