Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes
Home » গৃহসজ্জা » ডিমের খোসা ফেলে দিচ্ছেন নাতো?

ডিমের খোসা ফেলে দিচ্ছেন নাতো?

ব্যক্তিগত ও পারিবারিকভাবে সচরাচর যে খাবারটি সবচেয়ে বেশি খাওয়া হয়, তা হলো ডিম। মাছ-মাংসের চেয়ে ডিম সহজলভ্য হওয়ায় প্রোটিনের উৎস হিসেবে ডিমকেই বেছে নিচ্ছেন অনেকে। ডিমের উপকারিতার কথা কারো অজানা নয়। কিন্তু ডিমের খোসারও রয়েছে হরেক রকম উপকারিতা। ভয়ের কিছু নেই ! আপনাকে ডিমের খোসা খেতে বলা হচ্ছে না! তবে এটি ফেলে না দিয়ে কীভাবে কাজে লাগানো যায়, আসুন তা জেনে ফেলি-

ডিমের খোসা ক্যালসিয়ামে ভরপুর। সেই কারণে গাছের সার হিসেবে ডিমের খোসার ব্যবহার অতুলনীয়। সেকারণে ফেলে না দিয়ে ডিমের খোসা গুঁড়া করে গাছের গোড়ায় দিতে পারেন। এর থেকে গাছ পুষ্টি পাবে।

ফার্স্ট এইড হিসেবে ব্যবহার হতে পারে ডিমের খোসা। ডিম সেদ্ধ করার পর খোসা এবং এগ হোয়াইটের মধ্যে যে পাতলা সাদা একটা আবরণ থাকে, সেটি সাধারণ কাটা-ছেঁড়া সারাতে দারুণ উপকারী হতে পারে। ওই আবরণটি ব্যান্ডেজের মতো কাটা জায়গায় লাগিয়ে রাখলে খুব তাড়াতাড়ি রক্ত বন্ধ হয়ে যায়।

সিংক পরিস্কার করতে কত্তো ঝামেলা ! তাই রান্নাঘরের সিংক পরিষ্কার করতে ডিমের খোসা দারুণ কাজে লাগতে পারে আপনার। সিংকের নলে খাবারের টুকরো আটকে অনেক সময় মুখ বন্ধ হয়ে যায়। বাসন পরিষ্কার করার সময় সিংকের মুখে একটু বড় সাইজের ডিমের খোসা রেখে দিলে খাবারের টুকরো তার মধ্যে থেকে যাবে।

ডিমের খোসা ব্যবহার করে রুপার বাসন পরিষ্কার করা যাবে। হার্ডবয়েল্ড ডিমের খোসা গুঁড়া করে তা দিয়ে রূপার বাসন আর গয়না পরিষ্কার করলে একদম ঝকঝকে হয়ে যাবে।

ও হ্যাঁ, ফ্লাস্ক পরিষ্কার করতেও ডিমের খোসা ব্যবহার করতে পারেন। ডিমের খোসা টুকরা করে ফ্লাস্কের ভেতরে ফেলে দিন, তার মধ্যে গরম পানি দিন। এবার ফ্লাস্কের মুখ বন্ধ করে ভালো করে ঝাঁকিয়ে নিয়ে খোসাসুদ্ধ পানিটা ফেলে দিন। কি, যাদু মনে হচ্ছে তাই না? কী দারুন ব্যাপার ! ফ্লাস্ক একদম নতুনের মতো হয়ে গেছে।

Comments

comments

Leave a Reply

x

আপনার জন্য নির্বাচিত পোস্ট

ঘরের দেয়ালে নকশা আঁকি

ঘরের দেয়াল সাজানোর অনেক পদ্ধতি আছে। আপনি চাইলে পেরেক ঠুকে ছবি টাঙিয়ে কিংবা শোপিস ঝুলিয়েও ...

error: Content is protected !!