Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes
Home » জানা-অজানা » পাখিটি একই সঙ্গে পুরুষ ও নারী অর্থ্যাৎ উভয়লিঙ্গ!
https://lifestylecampus24.com/

পাখিটি একই সঙ্গে পুরুষ ও নারী অর্থ্যাৎ উভয়লিঙ্গ!

আমাদের কাছাকাছি অসংখ্য পাখির বাস। কিন্তু লাখে একটিও মিলবে কি-না এমন গানের পাখির সন্ধান পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। বিরল এ পাখির শরীরে একটি অংশ পুরুষ; অন্য অংশের গঠন নারী বৈশিষ্ট্যে। সিএনএন বলছে, সর্বশেষ ১৫ বছর আগে একবার কার্নেজি জাদুঘরের প্রাকৃতিক ইতিহাসের পউডারমিল ন্যাচার রিজার্ভের গবেষকরা এমন পাখির সন্ধান পেয়েছিলেন।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়ার জীববিজ্ঞানীরা উভয়লিঙ্গের পাখির সন্ধান পেয়েছেন। এটিকে তারা রোজ-ব্রেস্টেড গ্রসবেক নামে চিহ্নিত করেছেন। এ প্রজাতিভুক্ত পাখি বিরল না হলেও বিজ্ঞানীরা যেটিকে গবেষণাগারে নিয়েছেন, সেটি অত্যন্ত বিরল। পাখিদের ক্ষেত্রে এমন উভয়লিঙ্গ সচরাচর চোখে পড়ে না।

দি নেচার রিজার্ভের পাখির ব্র্যান্ড কর্মসূচির ব্যবস্থাপক অ্যানি লিন্ডসে বলেন, ‘প্রত্যেকে, বিশেষ করে সব গবেষক এটি নিয়ে খুবই উৎসাহী ছিলেন। এ ধরনের অনুভূতি অবশ্যই বৈজ্ঞানিক স্বার্থে। কিন্তু তাদের জন্য বিরল কিছু দেখা ছিল ভিন্ন রকম আনন্দের।’

রোজ-ব্রেস্টেড গ্রসবেক পাখির রং দেখে সহজেই তাদের লিঙ্গ শনাক্ত করা যায়। পুরুষরা গোলাপি পালকের এবং নারীরা হলুদ-বাদামি হয়। কিন্তু সন্ধান পাওয়া পাখির দেহ ভিন্ন রঙের। এ জিনগত ভিন্নতাকে জীববিজ্ঞানের পরিভাষায় গাইন্যানড্রোমরফিসম বলা হয়। এখানে গ্রিক শব্দ গাইনা অর্থ নারী; আর অ্যানড্রোর অর্থ পুরুষ এবং মরপের অর্থ বৈচিত্র্য। যদিও গাইন্যানড্রোমরফিসম পাখিদের জীবনে কতটা প্রভাব ফেলে, তা এখনো বিজ্ঞানীদের অজানা।

অ্যানি লিন্ডসে বলেন, ‘সম্ভবত এটির কোনো প্রভাব নেই। তবে তার সঙ্গীর ওপর প্রভাব ফেলবে। এই পাখিটির নারীপক্ষের কার্যকরী জিম্বাশয় থাকলে তা পুরুষ সঙ্গীকে আকৃষ্ট করবে এবং একই ধরনের আরও পাখি উৎপাদন সম্ভব হবে।’

প্রকৃতিতে পাখির সংখ্যা কমে আসার কারণ অনুসন্ধানের অংশ হিসেবে পউডারমিল নেচার রিজার্ভের বিজ্ঞানীরা পাখি পর্যবেক্ষণ করেন। এটি করতে গিয়েই সম্প্রতি তারা ওই পাখির সন্ধান পান। এটি রোজ-ব্রেস্টেড গ্রসবেক প্রজাতিভুক্ত নিশ্চিত হলেও তার বিচিত্র রং বিজ্ঞানীদের বিস্মিত করে। কারণ এটির একদিকে পুরুষ গ্রসবেকের উজ্জ্বল লাল পালক; অন্যদিকে রয়েছে স্ত্রী পাখির ক্যানারি হলুদ রঙের পালক।

জীববিজ্ঞানীরা বলছেন, পাখিটির ডান পাশে গোলাপি রং, বাম দিকে হলুদের সমাবেশ। পাখিটি যে একই সঙ্গে পুরুষ ও স্ত্রী, তা বোঝার জন্য বাইরের রংটুকুই যথেষ্ট ছিল। এরপর ল্যাবে এনে পরীক্ষাতেও উভয়লিঙ্গের প্রমাণ মেলে। পাখিটির শরীরের ডান দিকে প্রত্যাশা মতো একটি শুক্রাশয় ও পুরুষের অন্যান্য সব বৈশিষ্ট্য পাওয়া গেছে। বাকি অর্ধেকে রয়েছে একটি ডিম্বাশয় ও অন্যান্য স্ত্রী পাখির বৈশিষ্ট্য পাওয়া যায়।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, কোনো ডিমের ভেতরে যদি একটার বদলে দুটো আলাদা নিউক্লিয়াস থাকে এবং সেটি যদি দুটি স্পার্মের মাধ্যমে নিষিক্ত হয়, তখন ডিমটির মধ্যে দুটি লিঙ্গের ক্রোমোজমের আলাদা বিকাশ হতে থাকে।

পউডারমিল প্রকৃতি সংরক্ষণের এক বিজ্ঞানীর দাবি, বিগত ৬০ বছর তারা পাখি নিয়ে অনুসন্ধান চালালেও এমন ১০টি পাখির সন্ধান পেয়েছেন। এ তালিকায় যুক্ত হলো নতুন রোজ-ব্রেস্টেড গ্রসবেক। গ্রসবেক পাখি আগে উত্তর আমেরিকায় দেখা যেত। ক্রমে পরিযায়ী হয়ে দক্ষিণ আমেরিকা, মেক্সিকোতেও ছড়িয়েছে তারা।

Comments

comments

x

আপনার জন্য নির্বাচিত পোস্ট

https://lifestylecampus24.com/

গোপনে ধারণ করা এসএমএস চিত্রের প্রদর্শনী!

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বিস্তার তখনো সেভাবে ইউরোপ আমেরিকায় ছড়িয়ে পড়েনি।  সামাজিক বা শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার ...

error: Content is protected !!