https://lifestylecampus24.com/

গরমে চুলের যত্নে চাই বাড়তি যত্ন

চুল নিয়ে গরমের এই সময়ে সবার থাকে বাড়তি চিন্তা। ঘাম আর ধুলা চুলের ক্ষতি তো করেই, বাতাসের অতিরিক্ত আর্দ্রতা চুলকে নেতিয়ে দেয়। এসব সমস্যা দূর করতে চাই চুলের বাড়তি যত্ন।

সানস্ক্রিন ত্বককে যেভাবে সূর্যের আলো থেকে রক্ষা করে, একইভাবে সে চুলকেও রক্ষা করতে পারে। তাই বাইরে যাবার আগে চুলে এবং মাথার তালুতে সানস্ক্রিন লাগিয়ে ম্যাসাজ করে নেয়া ভালো।

যারা সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে চাইছেন না, তারা রোদে যাবার আগে চুল বেঁধে ঢেকে রাখতে পারেন। বাজারে দারুণ সব স্কার্ফ পাওয়া যায়। স্কার্ফ ব্যবহার করলে চুল ভালো থাকবে। বাহারি ক্যাপও ব্যবহার করতে পারেন।

চুলের সব সময়ের বন্ধু শ্যাম্পু। চুলের সঠিক যত্ন নিতে গরমের এই সময়ে নারিশিং শ্যাম্পু ব্যবহার করতে পারেন। নারকেল, শিয়া বাটার, আর্গান অয়েলসমৃদ্ধ শ্যাম্পু চুলের সুস্বাস্থ্য বজার রাখে। তবে প্রতিদিন শ্যাম্পু করা যাবে না। সপ্তাহে তিন দিন শ্যাম্পু করলেই যথেষ্ট।

শ্যাম্পু সঠিক পদ্ধতিতে ব্যবহার করাও জরুরি। সরাসরি চুলে শ্যাম্পু না লাগিয়ে তালুতে শ্যাম্পু নিন। সেটাকে আস্তে আস্তে ঘষে ফেনা তৈরী করুন। সেই ফেনা চুলে লাগিয়ে ধুয়ে ফেলুন। অতিরিক্ত শ্যাম্পু ব্যবহারে চুল রুক্ষ হবার যে আশঙ্কা থাকে, এভাবে ব্যবহার করলে সেটা হবে না।

শ্যাম্পু করার পর কন্ডিশনার ব্যবহার করা জরুরি। ডিপ কন্ডিশনিং করতে চাইলে কন্ডিশনারের বদলে হেয়ার মাস্ক লাগানো যেতে পারে। ডিম, দই আর মধু দিয়ে ঘরে বসেই হেয়ার প্যাক বানানো যায়। শুস্ক ও বিবর্ন চুলের যত্নে এটা বেশ উপকারী।

তবে, শুধু চুলের বাইরে আর্দ্রতা থাকলে হবে না। চুলের গভীরেও আর্দ্রতা ধরে রাখা জরুরি। সে জন্য কন্ডিশনিংয়ের পাশাপাশি থেরাপিউটিক হেয়ার অয়েল ব্যবহার করা যেতে পারে। নারকেল, অলিভ আর অ্যালমন্ড অয়েল চুলের বৃদ্ধি বজায় রাখে। সাত থেকে চৌদ্দ দিন পরপর চুলে এই তেলগুলো ব্যবহার করলে ভালো।

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!