https://lifestylecampus24.com/

ভূমিকম্পের পূর্বাভাস জানাতে আসছে শাওমির স্মার্টফোন

ভূমিকম্পের পূর্বাভাস জানা অত্যন্ত কঠিন যা এখনো পর্যন্ত মানুষের ধরা-ছোঁয়ার বাইরে। তবে, গবেষণা থেমে নেই। কেমন হবে যদি হাতের মুঠোফোনটাই বলে দেয় ভূমিকম্পের আগাম বার্তা! হ্যাঁ, খুব শিগগিরই শাওমি ফোনে জানা যাবে ভূমিকম্পের পূর্বাভাস। এরই মধ্যে চীনা এই প্রতিষ্ঠান ওই প্রযুক্তির পেটেন্টের আবেদন করেছে।

নতুন পেটেন্টের নাম ‘মেথড অ্যান্ড ইকুইপমেন্ট ফর রিয়ালাইজিং সিসমিক মনিটরিং অব মোবাইল ডিভাইসেস’। এই পেটেন্ট থেকে এমন এক প্রযুক্তির কথা জানা যাচ্ছে, যা ভূকম্পনের গতিবিধি নজরে রাখবে। আর ভূমিকম্পের আশঙ্কা থাকলেই তা জানিয়ে দেবে। ফলে আগে থেকেই সাবধান হতে পারবেন ব্যবহারকারীরা।

নতুন প্রযুক্তি থেকে এমন পূর্বাভাস দেওয়া যদি সম্ভব হয় তাহলে তা স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের জন্য সুফল নিয়ে আসবে। এখন পর্যন্ত কোনও স্মার্টফোনে এই ধরনের সুবিধা পাওয়া যায়নি।

এদিকে ফোল্ডেবল সিরিজের স্মার্টফোনের জন্য নতুন পেটেন্টের আবেদন করেছে শাওমি। জানা গেছে, মোবাইলের স্ক্রিন ও সাপোর্ট স্ট্রাকচার সংক্রান্ত কোন নতুন প্রযুক্তি নিয়ে আসছে শাওমি। সব কিছু ঠিক থাকলে শিগগিরই শাওমির ফোনে মিলবে এই দুই নতুন প্রযুক্তি।

সম্প্রতি বিশ্বের যেসব দেশে শাওমির ব্যবসা নেই সেই সব দেশে আনঅফিসিয়াল ফোন ব্লক করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে এই সিদ্ধান্তের ফলে স্মার্টফোন রিসেলিংয়ের ব্যবসা ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

দেশগুলোর তালিকায় রয়েছে সিরিয়া, কিউবা, ইরান, সুদান, উত্তর কোরিয়া। এসব দেশে শাওমি ব্যবসা না করলেও বেআইনিভাবে পাচারকারীদের হাত ধরে দেশগুলোতে তাদের স্মার্টফোন পৌঁছে গেছে।

নতুন রপ্তানি নীতিতে শাওমি অনুমোদনবিহীন অঞ্চলে নিজেদের ডিভাইসের ব্যবহার বন্ধ করতে সেগুলো নিষ্ক্রিয় করবে। সাম্প্রতিক সময়ে পাচারকৃত কোনো স্মার্টফোন যাতে নিষিদ্ধ দেশগুলোতে ব্যবহার করা না যায়, তা নিশ্চিত করতে কাজ করছে শাওমি।

অনুমোদনহীন দেশে এখন পর্যন্ত যে সব শাওমি ডিভাইস সক্রিয় রয়েছে, কিছুদিনের মধ্যেই সেগুলো অকার্যকর হয়ে পড়বে বলে জানিয়েছে শাওমি।

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!